গুগল

গুগল বা Google LLC (গুগল লিমিটেড লায়াবেলিটি কোম্পানি) ইন্টারনেটভিত্তিক সেবা ও পণ্যে বিশেষায়িত একটি আমেরিকান বহুজাতিক প্রযুক্তি কোম্পানি।

ল্যারি পেজ ও সের্গেই ব্রিন ১৯৯৮ সালের ৪ই সেপ্টেম্বর এই টেক জায়ান্ট কোম্পানীটি নির্মান করেন। সে সময় তারা স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডির ছাত্র ছিলেন।

এর ১৪ শতাংশ শেয়ার তাদের এবং ৫৬ শতাংশ শেয়ার বিশেষ সুপারভোটিং ক্ষমতার মাধ্যমে স্টকহোল্ডারকে নিয়ন্ত্রণ করে।

এটি ২০০৪ সালের ১৯শে আগস্ট ইনিশিয়াল পাবলিক অফারিং (আইপিও) দেয় ও গুগলপ্লেক্স নামে মাউন্টেইন ভিউতে তাদের নতুন সদর দপ্তর স্থাপন করে।

২০১৫ সালের আগস্ট-এ এর কিছু কার্যক্রম আলফাবেট ইনকর্পোরেটেড নামে সমন্বিত করার পরিকল্পনার কথা জানায়।

পুনর্গঠনের সমাপনী অংশ হিসেবে ল্যারি পেজ সুন্দর পিচাইকে গুগলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে প্রতিস্থাপন করেন।

ল্যারি পেজ এখন আলফাবেটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা।

গুগল
গুগল

এটি তার প্রধান সেবা গুগল সার্চ ছাড়াও নতুন পণ্য, অধিগ্রহণ ও অংশীদারত্বের সাথে সাথে কোম্পানিটির দ্রুত প্রসারের দিকে মনোনিবেশ করে।

কাজ ও প্রোডাক্টিভিটি সেবা (গুগল ডক, শিট ও স্লাইড), ইমেইল (জিমেইল/ইনবক্স), সময়সূচী ও সময় ব্যবস্থাপক (গুগল ক্যালেন্ডার),

ক্লাউড স্টোরেজ (গুগল ড্রাইভ), সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম (গুগল+), ইন্সট্যান্ট ম্যাসেজিং ও ভিডিও চ্যাট (গুগল এলো/ডুও/হ্যাংআউট),

অনুবাদক (গুগল ট্রান্সলেট), মানচিত্র (গুগল ম্যাপস/ওয়েজ/আর্থ/স্ট্রিট ভিউ), ভিডিও শেয়ারিং (ইউটিউব),

কোন কিছু নোট নেওয়ার জন্য (গুগল কিপ), এবং ছবি ব্যবস্থাপক (গুগল ফটোজ) প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য উদাহরণ।

গুগল সারা পৃথিবীতে বিভিন্ন ডেটা সেন্টারে প্রায় এক মিলিয়ন সার্ভার চালায় ও প্রতিদিন ৫.৪ বিলিয়নের বা ৫০০কোটির উপর ওয়েব সার্চ রিকোয়েস্ট আসে।

প্রায় ২৪ পেটাবাইট ব্যবহারকারী কর্তৃক তৈরী ডেটা প্রক্রিয়াকরণ করে ।

২০০৯ সালের সেপ্টেম্বরের তথ্যানুযায়ী একে আমেরিকার সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করা ওয়েবসাইটের তালিকায় স্থান দেয় এলেক্সা।

এছাড়াও এর অন্যান্য আন্তর্জাতিক সাইট যেমন ইউটিউব, ব্লগার এবং অরকুট সেরা একশটি সাইটে স্থান পায়।

ব্রান্ড্য তাদের ব্রান্ড ইকুইটি ডাটাবেজে গুগলকে ২য় স্থান দেয়। গুগলের আধিপত্য কপিরাইট, গোপনীয়তা এবং সেন্সরশিপ প্রভৃতির মতাে বিভিন্ন সমালোচনার জন্ম দিয়েছে।

ইতিহাস

১৯৯৬ সালে ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের দুজন পিএইচডি কোর্সের ছাত্র ল্যারি পেইজ ও সের্গেই ব্রিন গবেষণা প্রকল্প হিসাবে এর কাজ শুরু করেন।

ঐ সময়ের সার্চ ইন্জিনগুলো একটি বিষয়কে কে কতবার সার্চ ইন্জিন পেইজে ইনপুট দিয়েছে সেই ভিত্তিতে রেজাল্ট এনালাইসিস করে আউটপুট দিতো।

কিন্তু তাদের মুল লক্ষ ছিলো কিভাবে একটি টপিকের উপর প্রকাশিত বিভিন্ন পেইজ সমুহের মাঝে ডাটা এনালাইজ করে সর্বোচ্চ সম্পর্কযুক্ত ওয়েব পেইজটিকে সামনে এনে উপস্থাপন করা যায়।

তারা একে পেজ র‌্যাঙ্ক বলে আখ্যায়িত করেন। প্রথমদিকে পেজ এবং ব্রিন এই নতুন সার্চ ইঞ্জিনের নাম ব্যাকরাব রাখেন।

কারণ এই ব্যবস্থায় ঐ সাইট কত গুরুত্বপূর্ণ তা নির্ধারণ করার জন্য সাইটের ব্যাকলিংকগুলো টেস্ট করা হত।

ভুল বানানে লিখা “googol” থেকে google শব্দটির উৎপত্তি।

যা রুপক অর্থে কোন সংখ্যার পিছনে একশত শুন্য বোঝানো হতো।

সার্চ ইন্জিনের বিশাল পরিমান তথ্য আদান প্রদানের গুরুত্ব বোঝানোর জন্য পরবর্তীতে এটিকেই নাম হিসেবে নির্ধারণ করা হয়।

প্রথমদিকে, গুগল স্ট্যানফোর্ড ইউনির্ভাসিটির ওয়েবসাইটের অধীনে চলত যার ঠিকানা ছিল google.stanford.edu এবং z.stanford.edu। ১৯৯৭ সালের ১৫ই সেপ্টেম্বর, ডোমেইন নাম হিসেবে গুগল নিবন্ধিত করা হয়।

৪ঠা সেপ্টেম্বর, ১৯৯৮ সালে কর্পোরেশন হিসেবে কর্পোরেট জগতে প্রবেশ করে।

যার হেড অফিস ছিলো ম্যানলো পার্ক, ক্যালিফোর্নিয়ার ক্রেইগ সিলভারস্টাইনে বাস করা সুজান ওজচিচকি নামে তাদের এক বন্ধুর গ্যারেজে।

স্ট্যানফোর্ডের ফেলো পিএইচডি ডিগ্রি প্রাপ্ত একজন ছাত্র ছিলেন কোম্পানীটির সর্বপ্রথম নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মী।

১৯৯৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর ল্যারি পেইজ ও সের্গেই ব্রিন একটি প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি হিসেবে গুগল প্রতিষ্ঠা করেন।

২০০৪ সালের ১৯শে আগস্ট এটিকে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিতে পরিবর্তন করা হয়।

২০১১ সালের মে মাসে, প্রথমবারের মত এক মাসে গুগলে ইউনিক ভিজিটর এক বিলিয়ন পার হয়।

যা ছিল ২০১০ সালের মে মাসের থেকে ৮.৪ ভাগ বেশি।

২০১৩ সালের জানুয়ারিতে, গুগল এটি $৫০ বিলিয়ন বার্ষিক আয় করে ২০১২ সালে।

যা গত বছরের চেয়ে ১২ বিলিয়ন ডলার বেশি।

গুগল এর পণ্য এবং সেবা

বিজ্ঞাপন

গুগলের ৯৯% আয় আসে বিজ্ঞাপন খাত থেকে।

২০০৬ অর্থবছরে, কোম্পানী জানায় ১০.৪৯২ বিলিয়ন ডলার বিজ্ঞাপন থেকে এবং লাইসেন্স ও অন্যান্য খাত থেকে ১১২ মিলিয়ন আয় হয়।

গুগল অনলাইন বিজ্ঞাপন বাজারে বিভিন্ন নতুন মাত্রা যোগ করে।

ডাবলক্লিক কোম্পানীর প্রযুক্তি ব্যবহার করে গুগল ব্যবহারকারীদের আগ্রহ এবং অনুসন্ধান অনুযায়ী বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে।

গুগল এন্যালিটিকস এমন একটি প্রযুক্তি যা ওয়েব সাইটের মালিকগন কিভাবে, কোথায় মানুষ তাদের ওয়েব সাইট ব্যবহার করে থাকেন তা জানতে পারেন।

উদাহরণ সরূপ বলা যায়, কোন ওয়েব পেইজের সকল লিংকের মধ্যে কোনগুলোতে ক্লিক বেশি পড়েছে তা ক্লিক রেটের মাধ্যমে বের করা যায়।

গুগলের এ্যডওয়ার্ডস এর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রদানকারীরা কস্ট পার ক্লিক অথবা কস্ট পার ভিউ দুটির একটি ব্যবহার করে গুগল নেটওর্য়াকে বিজ্ঞাপন দিতে পারে।

গুগল তাদের নিজেদের পণ্যের বিজ্ঞাপন করতে ডেমো স্লাম নামে একটি ওয়েব সাইট ছাড়ে যার নাম যা গুগলের বিভিন্ন পণ্যের প্রযুক্তি ডেমো বা সাময়িকভাবে দেখানোর জন্য বানানো হয়।

প্রযুক্তিকে নতুনভাবে দেখানোর জন্য প্রতি সপ্তাহে দুটি দল প্রতিযোগিতা করে নিত্য নতুন আইডিয়া বের করে থাকে।

গুগল সার্চ

“গুগল সার্চ” একটি ওয়েব ভিত্তিক সার্চ ইঞ্জিন, যেটি কোম্পানীটির সবচেয়ে জনপ্রিয় সেবা।

২০০৯ সালের নভেম্বরে কমস্কোর কর্তৃক প্রকাশিত এক বাজার জরিপে বলা হয় গুগল আমেরিকার বাজারে প্রধান সার্চ ইঞ্জিন যার বাজার অংশীদারী ছিল ৬৫.৬ শতাংশ।

গুগল বিলিয়নেরও বেশি ওয়েব পেইজ ইনডেক্স করে রাখে যাতে ব্যবহারকারীরা যে তথ্য খুজছে তা অনায়সে পেয়ে যেতে পারেন। 

উৎপাদনশীল প্রোগ্রাম

জিমেইল একটি ফ্রি ওয়েবমেইল সেবা, ২০০৪ সালের ১ এ্রপ্রিল এটি শুরু করা হয়েছিল শুধুমাত্র আমন্ত্রন নির্ভর বেটা প্রোগ্রাম হিসেবে।

৭ই ফেব্রুয়ারি ২০০৭ সালে জনগনের কাছে উন্মুক্ত করা হয়।

৭ই জুলাই ২০০৯ সালে সেবাটি বেটা সংস্করন থেকে মূল প্রোগ্রামে আসে যখন এটার প্রায় ১৪৬ মিলিয়ন মাসিক ব্যবহারকারী ছিল।

১ গিগাবাইট স্টোরেজ স্পেস সংবলিত সেবাটি ছিল প্রথম অনলাইন ইমেইল সেবা।

এটিই প্রথম ইমেইল সেবা যেখানে ইন্টারনেট ফোরামের মত একই ইমেইলগুলোকে একসাথে রাখা হয়।

সেবাটি এখন তার অন্যান্য এ্যাপ্লিকেশনের সাথে ভাগাভাগি করে ১৫ গিগাবাইট পর্যন্ত সংরক্ষনের জায়গা প্রদান করে।

পরে ২০ গিগাবাইট থেকে ১৬ টেরাবাইট পর্যন্ত বর্ধিত করা যায় যার জন্য প্রতি এক গিগাবাইটে ০.২৫ ডলার প্রতি বছর ফি দিতে হয়।

জিমেইল আজাক্স ব্যবহার করে, যা মুলত একটি প্রোগ্রামিং কৌশল যেটি ব্যবহার করে ব্রাউজারকে রিফ্রেশ করা ছাড়াই কাজ করা যায়।

২০০৪ সালে, এই প্রতিষ্ঠানটি ফ্রি সোর্স সফটওয়্যার প্রকল্প হোষ্টিং করা শুরু করে যার নাম গুগল কোড।

এটি ডেভেলপারদের ডেভেলপমেন্টের প্রোগ্রামগুলো ফ্রি-তে ডাউনলোড করার সুযোগ দেয়। 

Google ড্রাইভ, এর আরেকটি উল্লেখযোগ্য পণ্য।

যেটি ব্যবহারকারীদের ডকুমেন্ট তৈরী, এডিটিং এবং সমন্বয় করতে সহায়তা করে অনলাইনে যা কিনা মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের মতই সেবা দেয়।

এই সেবাটিকে আসলে ডাকা হত রাইটলি নামে ।

গুগল ২০০৬ সালের ৯ মার্চ একে কিনে নেয়।

এটিও আমন্ত্রন নির্ভর করে ছাড়া হয়।

কিনে নেয়ার পর ৬ই জুন এটি পরীক্ষামূলক স্প্রেডশীটি এডিটিং প্রোগ্রাম তৈরী করে।

যা ওই বছর অক্টোবরের ১০ তারিখে গুগল ডকসের সাথে সমন্বয় করা হয়।

Google ফর ওয়ার্ক হল এর একটি সেবা যা পণ্যের পরিবর্তনযোগ্য ব্যবসায়িক সংস্করন প্রদান করে ক্রেতাদের দেয়া ডোমেইন নাম ব্যবহার করে।

এটির মধ্যে আছে বেশকিছু ওয়েব এ্যাপ্লিকেশন যা গতানুগতিক অফিস প্যাকেজের মতই সুবিধা দেয়।

যেমন জিমেইল, হ্যাঙ্গআউটস, Google ক্যালেন্ডার, Google ড্রাইভ,Google ডকস, Google শীটস, Google স্লাইডস, Google গ্রুপস, Google নিউজ, Google প্লে, Google সাইটস এবং Google ভল্ট।

এর এন্টারপ্রাইজ পরিষেবা

২০১৬ সালের ১৫ ই মার্চ, গুগল অ্যানালিটিক্স ৩০০ স্যুট, “এন্টারপ্রাইজ-ক্লাস মার্কেটারদের প্রয়োজনের জন্য বিশেষভাবে ডিজাইন করা ইন্টিগ্রেটেড ডেটা এবং মার্কেটিং অ্যানালিটিক্যালস প্রোডাক্টস” চালু করার ঘোষণা দিয়েছে।

যা গুগল ক্লাউড প্ল্যাটফর্ম-এ বিগকুয়ারির সাথে সংযুক্ত করা যায়। অন্যান্য জিনিসের মধ্যে স্যুটটি “এন্টারপ্রাইজ শ্রেণীর বিপণনকারীদের” “সম্পূর্ণ গ্রাহক ভিজিট” দেখতে, “দরকারী অন্তর্দৃষ্টি” তৈরি করতে এবং “সঠিক ব্যক্তির কাছে আকর্ষণীয় অভিজ্ঞতা সরবরাহ” সহায়তা করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে।

দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের জ্যাক মার্শাল জানান স্যুটটি অ্যাডোব, ওরাকল, সেলসফোর্স এবং আইবিএম সহ সংস্থাগুলি দ্বারা বিদ্যমান বিপণন ক্লাউডের প্রস্তাবগুলির সাথে প্রতিযোগিতা করছে।

কর্মী

২০১৩ সালে অধীনস্থ মোটরোলা কোম্পানীসহ সব মিলিয়েে এ প্রতিষ্ঠানে ৪০টি অফিসে ৪৭,৭৫৬ জন কর্মী রয়েছে। যাদের মধ্যে ১০,০০০ হাজারেরও বেশি সফটওয়্যার ডেভেলপারগন রয়েছে ।

২০০৪ সালে কোম্পানীটি প্রথম শেয়ার বাজারে আসার পর এর প্রতিষ্ঠাতা সের্গেই ব্রিন এবং ল্যারি পেজ এবং সিইও এরিখ স্কমিডট অনুরোধ করেন তাদের মূল বেতন যাতে এক ডলারে নামিয়ে আনা হয়।

পরবর্তী সময়েও কোম্পানীর তরফ থেকে তাদের বেতন বৃদ্ধির ব্যাপারটি প্রত্যাখান করা হয়।

কারণ প্রাথমিকভাবে তাদের মূল বেতন আসত এর শেয়ার থেকে।

২০০৪ সালের আগেই স্কমিডট প্রতি বছর ২৫০,০০০ ডলার আয় করেন।

পেজ ও ব্রিন প্রত্যেকেই বার্ষিক বেতন ১৫০,০০০ ডলার ছিলো।

WWW (World Wide Web) সম্পর্কে জানতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন https://digitalkishoreganj.com/www-%e0%a6%8f%e0%a6%b0-%e0%a6%87%e0%a6%a4%e0%a6%bf%e0%a6%ac%e0%a7%83%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%a4/

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here