ফুসফুস ভালো রাখার খাবার

বায়ুদূষণ আমাদের স্বাস্থ্যের উপর মারাত্মক প্রভাব ফেলছে। বায়ুদূষণের জন্য আমাদের দেহে নানা রকমের জটিল রোগ দেখা দিচ্ছে। সমস্যা দেখা দিচ্ছে ফুসফুসে। বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিচ্ছেন, বায়ুদূষণের ক্ষতিকর প্রভাব ঠেকাতে নিয়মিত কিছু স্বাস্থ্যকর খাবার আমাদের খেতে হবে। তার মধ্যে অন্যতম খাবার হলো টমেটো। ফুসফুস ভালো রাখার খাবার রয়েছে অনেক। টমেটোতে লাইকোপেন অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শ্বাসযন্ত্রে সুরক্ষা-স্তর হিসাবে কাজ করতে পারে।

তাছাড়া অনেক খাবার রয়েছে যা আমাদের ফুসফুসকে ভালো রাখতে সাহায্য করে।

আসুন তাহলে সেই খাবার সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-

টমেটো
টমেটো আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে থাকেন। টমেটোতে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেটিভ, যা আমাদের কোষকে ভালো রাখে। টমেটোতে রয়েছে লাইকোপেন যা শ্বাসযন্ত্রের সুরক্ষাকবচ হিসাবে কাজ করে। আবার বাতাসে থাকা ক্ষতিকর ধূলিবালির কণার প্রভাব হিসাবেও লাইকোপেন কাজ করে।

আমলকি
নিয়মিত আমলকি খেলে যকৃতের ধূলিকণার সকল ক্ষতি ঠেকাতে পারে। আমলকিতে থাকা ভিটামিন সি আমাদের শরীরের যে কোন রোগকে প্রতিরোধ করার ক্ষমতা বারিয়ে দেয়।

হলুদ
আমাদের নিত্য ব্যবহারের জিনিস। হলুদ আমাদের অনেক উপকারে আসে। হলুদে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা দূষিত কণার প্রভাব থেকে ফুসফুসকে সুরক্ষা দিতে কাজ করে।

তুলসী
তুলসীপাতা আমাদের ফুসফুসকে বায়ুদূষণের হাত থেকে রক্ষা করতে পারে। তাছাড়াও বাতাসে থাকা ধূলিকণা শোষণ করার ক্ষমতা থাকে তুলসীগাছের। নিয়মিত অল্প অল্প করে তুলসীপাতার রস খেলে শরীরের শ্বাসযন্ত্র দূষিত পদার্থ দূর করতে সক্ষম।

লেবুজাতীয় ফল
কমলা অথবা লেবু জাতীয় যেকোনো ধরণের লেবুতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে। আর ভিটামিন সি আমাদের ফুসফুসকে বায়ুর ক্ষতিকর উপাদানগুলো থেকে রক্ষা করতে পারে।

গুড়
গুড়ের ভাল ফল পেতে আমি গুড় আর তিল এক সাথে খেতে পারেন তাহলে অনেক ভালো ফল পেতে পারেন। সেই খাবার বায়ুদূষণের ক্ষতিকর প্রভাব কমিয়ে দিতে পারে।

সবুজ চা
প্রতিদিন আপনি দুই কাপ সবুজ চা খেতে পারেন। সবুজ চা আপনার শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ দূর করতে সাহায্য করে। কারণ সবুজ চায়ের মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। যা আমাদের ফুসফুস ভালো রাখতে অনেক সাহায্য করে।

ভালো স্বামী হওয়ার উপায় সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here