বসে কাজ করার অপকারিতা

বসে কাজ করলে কি ধরনের ক্ষতি হয় তা আমরা অনেকেই জানিনা

বর্তমান সময়ে প্রযুক্তির উৎকর্ষের আজকাল বেশির ভাগ কাজ করা হয় কম্পিউটারে মাধ্যমে। যার জন্য আমাদের কায়িক পরিশ্রম কমে গিয়েছে, আবার বেড়েছে মাথা কাটানোর কাজ। আজকাল বেশির কাজ অফিসে বসে কম্পিউটার বা ল্যাপটপে কাজ করতে হয়। এসব কাজ করতে দেখা যায় যে আমাদেরকে ৮-১১ ঘন্টা চেয়ারে বসে থাকতে হয়। তার জন্য আমাদের শরীরে তৈরী হয় নানা রকমের সমস্যা।

সারাবিশ্বে প্রতি বছর যে পরিমান মানুষ মারা যায় তার ৪ শতাংশ মৃত্যু হয় অনেক্ষণ বসে থাকা বা কাজ করার কারণে। সংখ্যাটি ৪ লক্ষ ৩৩ হাজার। আপনি যদি ৩ ঘন্টা টানা বসে থাকেন তাহলে মৃত্যুকে সাদরে গ্রহন করছেন।

আমরা অনেকেই কাজে এমন ভাবে ডুকে যায় যে সময়ের প্রতি খেয়াল থাকে না। এমন লম্বা সময় যখন আমরা বসে কাজ করি তখন আমাদের নিজের অজান্তেই আমাদের শরীরের ক্ষতি হয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি জর্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের এক দল গবেষক এটি নিশ্চিত হয়েছেন তাদের গবেষণায় যে, টাইপ টু ডায়াবেটিস ৯০% সময় হয় এক মাত্র এই বসে থাকার কারনে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এভাবে সারাদিন বসে একটানা কাজ করলে নানা ধরনের শারীরিক সমস্যা হতে পারে। আসুন তাহলে সমস্যাগুলোর সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-

আমাদের হৃদরোগ এর কারণ হচ্ছে মূলত ফ্যাটি অ্যাসিড। আর এই ফ্যাটি অ্যাসিড হয় লম্বা সময় বেসে থাকলে শুয়ে থাকলে। আর এত সময় বেসে শুয়ে থেকে সময় পার করলে এই অ্যাসিড ঝরার কোন সুযোগ থাকে না। ফলে বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়।

আমাদের চার পাশে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে যে, অনেকেরই পিঠ, কাধা, কমর, ঘাড় ইত্যাদি জায়গায় ব্যাথায় ভুগছেন। যেটা হয় এই দীর্ঘ সময় বসে থাকার ফলে হয়।

অনেকেই মনে করেন যে লম্বা সময় বেসে কাজ করলে শুধু দেহেরই ক্ষতি হয় কিন্তু এর থেকেও বেশি ক্ষতি হয় বা প্রভাব পড়ে আমাদের মানসিক ভারসাম্যে। ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার গবেষকরা বলছেন, দীর্ঘ সময় বসে কাজ করলে মস্তিষ্কের নির্দিষ্ট অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয় ।
অনেকেই ওজন নিয়ে চিন্তিত থাকেন। কিন্তু তারা এইটা জানেনা যে, ওজন বাড়ার পিছনে এই বসে থাকা অনেক বড় ভূমিকা পালন করে।

নরওয়ের ‘ইউনিভার্সিটি অব সায়ন্স এন্ড টেকনলজি’র গবেষকরা বলছেন, একটানা বসে কাজ করলে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়।

অনেক সময় পা ফুলে যাওয়া, পায়ে ঝিঝি করা ইত্যাদি হয় মূলত রক্ত সঞ্চালন ঠিক মত না হলে। যখন লম্বা সময় বেসে কাজ করা হয় তখন যে চাপ পড়ে পায়ে ফলশ্রুতিতে এই সমস্যাগুলো হয়।

অনেকের ঠিক মত ঘুম হয় না এর বড় একটি কারণ দীর্ঘ সময় বসে থাকা বা বসে কাজ করা।

গবেষকদের মতে বসে কাজ করার সময় ৩০ মিনিট বা আধা ঘণ্টা পর পর অল্প সময়ের জন্য একটা ব্রেক বা বিরতি নিতে হবে। আর এই সময়টিতে শরীর একটু নাড়াচাড়া এবং পারলে হাটতে হবে। যাদের ঘাড়, পিঠে ব্যথা হয় তাদের প্রতি আধ ঘণ্টা পর পর তাদের ফ্রি হ্যান্ড ব্যায়াম করা উচিত।

শরীরচর্চা যে ভূলগুলো হয় তার সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here